২০১৯ দুর্গাপুজোর নির্ঘণ্ট! জানুন দিন-ক্ষণ-তারিখ সহ সন্ধিপুজোর সময়

আকাশ এখনও মেঘলা। ভ্যাপসা গরম। গুমোট গরমে হাঁসফাঁসানি ক্রমেই যেন বেড়ে উঠছে! তবে ইতিউতি এরই মধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে, চাঁদা তোলা, বা পুজো কমিটির মিটিং! অন্যদিকে, অনেকেই ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন পুজোর একটি একটু শপিং নিয়ে! আর মাত্র ২ মাসের অপেক্ষা, ব্যাস তারপরই অস্বস্তিকর গরমের রেশ কাটিয়ে কাশবনের ক্ষেতে মৃদুমন্দ হাওয়া জানান দেবে ‘মা আসছেন’!

এই ‘মা আসছেন’ শব্দটিতেই বাঙালির সমস্ত আবেগ যেন পরতে পরতে সাজানো রয়েছে। ফের একবার ভোরের রেডিও খুলেই বীরেন্দ্রকৃষ্ণের কণ্ঠস্বরে স্তোত্রপাঠের অপেক্ষায় কাউন্টডাউন শুরু হয়ে যাবে। আর যাবতীয় অপেক্ষা শেষ করে, ঢাকেল বোলে ২০১৯ এর দুর্গাপুজোয় মাতবে বাঙালি! সেই অপেক্ষার প্রহরের আগে , একনজরে দেখে নিন ২০১৯ সালের দুর্গাপুজোর নির্ঘণ্ট।

মহালয়া – ভোর রাতে চোখ কোচলে অ্যালার্মের আওয়াজে উঠতে হবে.. এই ভাবনা নিয়েই মহালয়ার আগের রাতে ঘুমোতে যায় বাঙালি। প্রতিবারের মতো এবারেও তার অন্যথা হবে না। আর সেই হিসাব মাথায় রেখে ২৭ সেপ্টেম্বর রাতেই ঘড়িতে অ্যালার্ম দিতে হবে। কারণ ২০১৯ সালের মহালয়া ২৮ সেপ্টেম্বর। ভোররাত থেকে সেদিন বাঙালির ঘরে ঘের যেমন রেডিওতে বীরেন্দ্রকৃষ্ণের স্তোত্রপাঠ শোনা যাবে, তেমনই এদিনই পিতৃতর্পণেও ভিড় জমবে গঙ্গার ঘাটে।

পঞ্চমী ষষ্ঠী – পঞ্চমীর মধ্যেই সমস্ত প্যান্ডেলে ঠাকুর এসে যায়। শেষ মুহবর্তের ব্যস্ততায় পুজো কমিটি গুলিতে ততদিনে হিড়িক পড়ে যাবে উদ্বোধনের। ২০১৯ সালের মহাপঞ্চমী ৩ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার। শাস্ত্র মতে মহাষষ্ঠী পড়ছে ৪ অক্টোবর, শুক্রবার। তবে তাতে কি! কলকাতার নামী পুজোয় প্যান্ডেল হপিং তার আগে থেকে না শুরু করলে কি আর বাঙালির পুজো প্ল্যান সম্পন্ন হবে!

সপ্তমী অষ্টমী – মহাসপ্তমী শুরু হবে ২০১৯ সালের ৫ অক্টোবর শনিবার । সেদিনই নবপত্রিকা স্নানের মাধ্যমে শুরু শাস্ত্র মতে ঢাকে কাঠি পড়বে পুজোর। ২০১৯ সালের মহাঅষ্টমী পড়েছে ৬ অক্টোবর, অর্থাৎ রবিবার দিন। অষ্টমীর দুপুর ১:৫৭ মিনিটে সন্ধিপুজের সময় শুরু হচ্ছে, আর শেষ হচ্ছে ২ :৪৫ মিনিটে।

নবমী দশমী – ২০১৯ সালের মহানবমী পড়েছে ৭ অক্টোবর, অর্থাৎ সোমবার। মহাদশমী পড়েছে মঙ্গলবার ৮ অক্টোবর। আর এর সঙ্গে সঙ্গেই শেষ হতে চলেছে ২০১৯ সালের দুর্গাপুজোর পর্ব। বিকেলের মন কেমনের সূর্যাস্তে সিঁদুর খেলার আনন্দে গা ভাসিয়ে উমাকে বিদায় জানাবে বাঙালি । আর তার মধ্যে দিয়েই শুরু হবে অপেক্ষা। আরও একটা বছরের অপেক্ষা। আর বোল উঠবে ‘আসছে বছর আবার হবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *